তামিমের আক্ষেপ সত্য প্রমাণ করে জোড়া সেঞ্চুরি কিউই ওপেনারদের

0
170

ডেস্ক রিপোর্ট: হ্যামিল্টন টেস্টে দ্বিতীয় দিনে চা-বিরতির আগে চাপে পরেছে বাংলাদেশ। হাতে ৯ উইকেট রেখে এরই মধ্যে ৬০ রানের লিড নিয়েছে নিউজিল্যান্ড। প্রথম ইনিংসে ২৩৪ রানে অলআউট হয় বাংলাদেশ।
‘উইকেটে বেশি কিছু নেই। ব্যাটিংয়ের জন্য ভালো উইকেট। সে জন্যই খারাপ লেগেছে, সারা দিন ব্যাট করা উচিত ছিল। কাল ও পরশু ব্যাটিংয়ের জন্য সেরা দিন। আর্দ্রতা চলে যাবে উইকেট থেকে’—প্রথম দিনের খেলা শেষে কথাগুলো বলেছিলেন তামিম ইকবাল। আজ নিশ্চয়ই তাঁর সতীর্থদের কানে বেজেছে এই কথা। প্রায় দেড় সেশন উইকেট ফেলতে না পারলে, শুধু বল কুড়োতে কার ভালো লাগে!
হ্যামিল্টন টেস্টে কাল ২৩৪ রানে গুটিয়ে যায় বাংলাদেশের প্রথম ইনিংস। বিনা উইকেটে ৮৬ রান নিয়ে দিনের খেলা শেষ করে নিউজিল্যান্ড। পুরো সময় ব্যাট করতে না পারার আক্ষেপ ঝরেছিল তামিমের কণ্ঠে, প্রথম দিনের খেলা শেষে। কেন এই আক্ষেপ, তা আজ হাড়ে হাড়ে বুঝিয়ে দিলেন নিউজিল্যান্ডের দুই ওপেনার টম লাথাম ও জিত রাভাল। ব্যাটিংবান্ধব হয়ে ওঠা উইকেটের সদ্ব্যবহার করে আজ দ্বিতীয় দিনে সেঞ্চুরি তুলে নিয়েছেন দুই ওপেনারই।
এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত অবশ্য ভেঙেছে তাঁদের ২৫৪ রানের জুটি। ১৩২ রান করা রাভালকে দ্বিতীয় সেশনে তুলে নিয়েছেন মাহমুদউল্লাহ। খালেদ আহমেদ রাভালের ক্যাচ নেওয়ার আগে দিনের খেলার প্রায় ৪২ ওভার বাংলাদেশের ফিল্ডাররা শুধু বল কুড়িয়েছেন। ১৩৭ রানে ব্যাট করা লাথামের সঙ্গে উইকেটে সঙ্গ দিচ্ছেন নিউজিল্যান্ড অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন (১৯)। এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত নিউজিল্যান্ডের স্কোর ১ উইকেটে ২৯৪।
চার টেস্টের অভিজ্ঞতাসম্পন্ন বাংলাদেশ দলের তিন পেসার এখনো কোনো উইকেট পাননি। আজ আবু জায়েদের কাছ থেকে দিনের প্রথম বাউন্ডারি আদায় করে নেন লাথাম। একই ওভারে রাভালও বাউন্ডারি তুলে নিয়ে সহজ হয়ে যান উইকেটের সঙ্গে। প্রথম সেশনে (২৬ ওভার) কোনো উইকেট না হারিয়ে ১১১ রান তুলেছেন দুই ওপেনার। অর্থাৎ দিনের এই সেশনে ওভার প্রতি প্রায় ৪.২ হারে রান তুলেছেন লাথাম ও রাভাল। এই পথে টেস্ট ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরিও তুলে নেন ভারতীয় বংশোদ্ভূত রাভাল। প্রথম শ্রেনির ক্রিকেটে প্রথম সেঞ্চুরির ১০ বছর পর টেস্টে সেঞ্চুরির খাতা খুললেন তিনি। নিউজিল্যান্ডের প্রথম ভারতীয় বংশোদ্ভূত ব্যাটসম্যান হিসেবে টেস্টে সেঞ্চুরির মুখ দেখলেন রাভাল।
ইনিংসের ৫৪তম ওভারে মধ্যাহ্নভোজন গিয়েছিল দুই দল। দ্বিতীয় সেশনে আরও ১৬ ওভার টিকেছে কিউইদের ওপেনিং জুটি। দ্বিতীয় সেশনের ষষ্ঠ ওভারের মাথায় টেস্ট ক্যারিয়ারে নিজের নবম সেঞ্চুরি তুলে নেন লাথাম। কাল নিউজিল্যান্ডের ইনিংসে দ্বিতীয় ওভারেই লাথামের ক্যাচ ছেড়েছিলেন সৌম্য সরকার। লাথামের সেঞ্চুরিটি তাই সৌম্যর জন্য একরাশ হতাশার উপলক্ষ। পরিসংখ্যানও বলছে, এই ওপেনিং জুটি যথেষ্ট হতাশাই উপহার দিয়েছে বাংলাদেশকে। দলীয় ২৫৪ রানে দুজন বিচ্ছিন্ন হওয়ার আগে বাংলাদেশের বিপক্ষে ওপেনিংয়ে সর্বোচ্চ রানের জুটি উপহার দিয়েছেন লাথাম-রাভাল। শুধু কী তাই, গত ৪৭ বছরের মধ্যে টেস্টে নিউজিল্যান্ডের এটাই সর্বোচ্চ রানের ওপেনিং জুটি।
বাংলাদেশের বোলারদের মধ্যে তিন পেসারই বেশি বল করেছেন। আবু জায়েদ, খালেদ আহমেদ আর অভিষিক্ত ইবাদত হোসেনের প্রত্যেক এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত ১৮ ওভারের বেশি বল করেছেন। সঙ্গে স্পিনার মেহেদী হাসান মিরাজও ১৫ ওভারের বেশি বল করেছেন। কিন্তু এই চার বিশেষজ্ঞ বোলারের কেউ উইকেট পাননি। রাভাল জোর করে মারতে গিয়ে টাইমিংয়ে গড়বড় না করলে মাহমুদউল্লাহও উইকেট পেতেন না। তামিমের আক্ষেপ নিশ্চয়ই তাঁর সতীর্থদের কানে বাজছে। তামিম, রাভাল ও লাথাম উইকেটের ভাষা পড়তে পেরেছেন বলেই তো সেঞ্চুরির মুখ দেখলেন!

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here