বিরাট প্রতিযোগিতার প্রেরণা জোগায়, জানালেন পেইন

0
172

দ্বীপ্তমান ডেস্ক ঃ  পার্থ টেস্টের তৃতীয় এবং চতুর্থ দিনে ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলি এবং অস্ট্রেলিয়া অধিনায়ক টিম পেইনের উত্তপ্ত বাক্যবিনিময় ঘিরে সরগরম ছিল ক্রিকেটমহল। শেষ পর্যন্ত ফিল্ড আম্পায়ার ক্রিস গাফানেকে গিয়ে মধ্যস্থতাও করতে হয়।
মাঠের সেই লড়াই মাঠের বাইরে আনতে দিলেন না দুই অধিনায়কই।
ঘটনার সূত্রপাত, তৃতীয় দিনের শেষ ওভারে স্লিপে টিম পেইনের ক্যাচের আবেদন জানায় ভারত। আম্পায়ার আবেদন নাকচ করে দিলেও ভারত রিভিউ নেয়নি। এরপরেই শুরু হয়ে যায় দুই অধিনায়কের বাক্য বিনিময়।
প্রথমে কোহলি বলেন, “ও (টিম পেইন) ভুল করলেই আমরা (সিরিজে) ২-০ তে এগিয়ে যাব”। দিনের শেষে অপরাজিত থেকে মাঠ ছাড়ার সময় কোহলিকে পাল্টা দিতে ছাড়েননি পেইন। তিনি বলেন, “আগে তোমাকে ব্যাট করতে হবে, বিগ হেড। ”
তৃতীয় দিনের সেই ঘটনার রেশ দেখা যায় চতুর্থ দিনেও। অস্ট্রেলিয়ার দ্বিতীয় ইনিংসে পঞ্চম উইকেট পার্টনারশিপে তখন জাঁকিয়ে বসেছেন পেইন ও খাওয়াজা।
কিছুটা শান্ত থাকার চেষ্টা করছেন তখন ক্যাপ্টেন কোহলি। এবার অবশ্য খোঁচা দিয়ে শুরুটা করেন পেইন।
অজি অধিনায়ক বলেন, ” গতকাল তো তুমিই শুরু করেছিলে। আজ সেই তুমিই শান্ত থাকার চেষ্টা করছ!” তখনই ফিল্ড আম্পায়ার ক্রিস গাফানে গিয়ে বলেন, “অনেক হয়েছে। এবার খেলো। তোমরা দুজনেই তো অধিনায়ক। পেইন তুমি অধিনায়ক। ”
আম্পায়ার বলার পরেও থেমে থাকেননি টিম পেইন। তিনি বলেন, “বিরাট নিজেরটা (মাথা) ঠাণ্ডা রাখো। ” তবে মোহম্মদ শামির বলে শেষ পর্যন্ত বিরাট কোহলির হাতেই ক্যাচ দিয়ে প্যাভিলিয়নে ফেরেন টিম পেইন।
ম্যাচ শেষে মঙ্গলবার সাংবাদিক সম্মেলনে এ বিষয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে বিরাট কোহলি বলেন, “এটা একটা প্রতিযোগিতামূলক ব্যাপার। এটা মাঠেই থাক! আমি এই নিয়ে বিস্তারিত এখন কিছু বলতে চাই না। সত্যি কথা বলতে, এটা এতটা গুরুত্বপূর্ণ নয় যে এই নিয়ে কিছু বলতে হবে। যা হওয়ার তা হয়ে গেছে। আমরা এখন মেলবোর্নের দিকে তাকাচ্ছি। আমরা কোনও খারাপ কথা বলি নি বা গালিগালাজ করি নি। কোনও ব্যক্তিগত আক্রমণও ছিল না। আমরা কখনও সীমা অতিক্রম করি নি। ”
বিরাটের সঙ্গে কী আপনার ধাক্কাধাক্কি হয়েছিল? সাংবাদিকদের এই প্রশ্নের উত্তরে টিম পেইন বলেন, “না না আমার মনে হয় না আমরা একে অপরকে ধাক্কা দিয়েছি। সত্যি কথা বলতে, আমরা হয়তো খুবই কাছাকাছি পৌঁছে গিয়েছিলাম কিন্তু না … খুব লড়াই হয়েছে এই টেস্ট ম্যাচ। আসলে দুই দলই টেস্টটা জিততে চেয়েছে। ”
ফের সাংবাদিকদের প্রশ্ন পেইনকে, আপনি কি গোটা ঘটনায় বিরক্ত হয়েছিলেন? পেইনের জবাব, “আমি তো বিরক্ত হয় নি। আমি তো ওকে দেখছিলাম আর বেশ উপভোগই করছিলাম। আমার মনে হয়, বিরাট অনেকের কাছেই প্রতিযোগিতার প্রেরণা জোগায়। যেটা বেশ ভাল। ”
বিডি-প্রতিদিন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here