৩ বছরেই ৫০% স্মার্ট ফিচার ফোন

0
169

ডেস্ক রিপোর্ট: ফিচার ফোনেও এখন স্মার্টফোনের নানা সুবিধা যুক্ত হচ্ছে। বিশ্বজুড়ে এ ধরনের ফোনের চাহিদা বাড়ছে। বাজার গবেষণা প্রতিষ্ঠান কাউন্টার পয়েন্টের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বৈশ্বিক স্মার্টফোনের বিক্রি আগামী তিন বছরে ব্যাপক বাড়বে। গত বছরে এ ধরনের ফোনের চাহিদা ২৫২ শতাংশ বেড়েছে। আগামী ৩ বছরে ২৮ বিলিয়ন মার্কিন ডলার রাজস্ব আসবে এ ধরনের ফোন থেকে। ভারত ছাড়াও যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া ও আফ্রিকার বাজারে এ ধরনের ফোনের চাহিদা বেশি।
কাউন্টার পয়েন্ট রিসার্চের গবেষণা পরিচালক নেইল শাহ বলেন, ২০২১ সাল নাগাদ বিশ্বজুড়ে স্মার্ট ফিচার ফোন ব্যবহারকারী ৩০ কোটি ছাড়িয়ে যাবে। এ খাতে সফটওয়্যার ও সেবা থেকে ৭১ শতাংশ আয় বাড়তে দেখা যাবে।
স্মার্ট ফিচার ফোনের সুবিধার মধ্যে প্রচলিত ফিচার ফোনের সুবিধার পাশাপাশি চিপসেট ও অপারেটিং সিস্টেম যুক্ত থাকে, যাতে স্মার্টফোনের মতো দ্রুতগতির ইন্টারনেট ব্যবহার করা যায়। এতে অ্যাপ্লিকেশন ও অন্যান্য সেবা ব্যবহারের সুযোগ থাকে।
কাউন্টার পয়েন্টের তথ্য অনুযায়ী, বর্তমানে ফিচার ফোনের বাজারের ১৬ শতাংশ দখল করেছে এই স্মার্ট ফিচার ফোন। ২০২১ সাল নাগাদ বিশ্বের মোট ফিচার ফোনের অর্ধেকই হবে স্মার্ট ফিচার ফোন।
স্মার্ট ফিচার ফোনে গ্রাহক টেনে আনার ক্ষেত্রে কাজ করছে কাইওএস নামের একটি প্রতিষ্ঠান। কাইওএস মূলত একটি সফটওয়্যার প্ল্যাটফর্ম, যা নতুন ধরনের ফোনে থ্রিজি ও ফোরজি নেটওয়ার্কের পাশাপাশি অ্যাপ ও সেবার ইকোসিস্টেম গড়ে দিচ্ছে।
কাউন্টার পয়েন্টের তথ্য অনুযায়ী, স্মার্ট ফিচার ফোনের বাজারে এগিয়ে আছে আইটেল ও এইচএমডি গ্লোবাল। ২০১৮ সালের তৃতীয় প্রান্তিকের তথ্য অনুযায়ী, স্মার্ট ফিচার ফোনের বাজারে আইটেল ও নকিয়া ব্র্যান্ডের ফোন তৈরি করে এইচএমডি গ্লোবাল ১৪ শতাংশ করে বাজার দখলে রেখেছ। ১১ শতাংশ দখলে রেখেছে জিও। স্যামসাংয়ের দখলে বাজারের ৮ শতাংশ। এরপর ৬ শতাংশ দখল নিয়ে বাজারে রয়েছে টেকনোর ফোন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here