নারী কর্মীর সাথে অনৈতিক সম্পর্ক, বরখাস্ত নিউজিল্যান্ডের মন্ত্রী

অধীনস্থ নারী কর্মীর সাথে অবৈধ সম্পর্কের কারণে নিউজিল্যান্ডের অভিবাসন বিষয়ক মন্ত্রীকে বরখাস্ত করেছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী জেসিন্ডা আর্ডান। তিনি বলেন লেইন লেস গেলওয়ের সাথে অফিসে কর্মরত এক নারী কর্মীর এক বছর ধরে অনৈতিক সম্পর্ক ছিলো।

উদারপন্থী লেবার পার্টির নেতৃত্বদানকারী আর্ডারন বলেন তিনি নৈতিক রায় দেওয়ার বিষয়ে সতর্ক ছিলেন, মন্ত্রী তার নিজের ভূমিকা সঠিকভাবে রক্ষা করতে পারেনি। তার দায়িত্ব ছিলো কর্মক্ষেত্রের সম্পর্ক ও সুরক্ষার তদারকি করা কিন্তু তা করেননি।

এরই মধ্যে আর্ডানের সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছেন ৪১ বছর বয়সী লেস গেলওয়ে সেই সাথে ক্ষমা চেয়েছেন তিনি। লেস গেলওয়ে বলেছেন, সেপ্টেম্বরে অনুষ্ঠিত আসন্ন সাধারণ নির্বাচনে তিনি পুনরায় নির্বাচন করবেন না। তিনি বলেন, আমি আমার পদে পুরোপুরি অনুপযুক্ত এবং একজন মন্ত্রী হিসাবে আমি আর দায়িত্ব চালিয়ে যেতে পারি না।

এর মাত্র একদিন আগে, বিরোধী দলের সংসদ সদস্য অ্যান্ড্রু ফ্যালন এক বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী সহ বেশ কয়েকজন নারীকে যৌন চিত্র পাঠানোর অভিযোগে পদত্যাগ করেছিলেন। তবে নিজের বিরুদ্ধে এই অভিযোগ নিয়ে কোন মন্তব্য করেননি ফ্যালন।

আর্ডান বলছেন, তিনি মঙ্গলবার বিকেলে অভিযোগগুলো সম্পর্কে জানতে পেরেছেন এবং সন্ধ্যায় লেস গেলওয়েকে তাদের সম্পর্ক নিয়ে প্রশ্ন করেছিলেন। তিনি বলেন তার এই ধরণের কাজ আমাকে একজন মন্ত্রী হিসাবে তার প্রতি আস্থা হারাতে বাধ্য করেছে।

জেসিন্ডা আর্ডান আরো বলেন যে সংসদে দীর্ঘকাল ধরে একটি সংস্কৃতি এবং একটি পরিবেশ ছিল যার উন্নতির প্রয়োজন ছিল। এই পরিবেশে আমরা মান বজায় রাখতে পারি তা নিশ্চিত করার জন্য আমাদের সবার ভূমিকার প্রয়োজন। এ বিষয়ে বিরোধীদলীয় নেতা জুডিথ কলিন্স বুধবার আর্ডেনের কাঝে চিঠির মাধ্যমে প্রেরিত বার্তায় বলেছেন যে সংসদের সংস্কৃতি পরিবর্তনের প্রয়োজন এবং এই বিষয়ে দু’ পক্ষেরই কাজ করা উচিত।

10430cookie-checkনারী কর্মীর সাথে অনৈতিক সম্পর্ক, বরখাস্ত নিউজিল্যান্ডের মন্ত্রী

Author: Faruk

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *