ঢাকার খাল পরিষ্কারে ক্র্যাশ প্রোগ্রাম শুরু

ঢাকা মহানগরীর পানিবদ্ধতা নিরসনের লক্ষ্যে ঢাকার ২৬টি খালের দায়িত্ব ঢাকা ওয়াসার বদলে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন (ডিএসসিসি) ও ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) কাছে হস্তান্তরের সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয় ৩০ ডিসেম্বর। এসময় ছিলেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম, ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র শেখ ফজলে ন‚র তাপস এবং ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন।

 

দায়িত্ব পাওয়ার তিন দিন পর গতকাল শনিবার রাজধানীর পান্থপথে বক্স কালভার্ট পরিষ্কারে ক্র্যাশ প্রোগ্রাম শুরু করেছে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করর্পোরেশন (ডিএসসিসি)। নগরের পানিবদ্ধতা নিরসনে এ প্রোগ্রাম চালানো হচ্ছে বলে জানিয়েছে সংস্থাটি।

 

ডিএসসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এ বি এম আমিন উল্লাহ নুরী এবং প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা এয়ার কমোডর মো. বদরুল আমিন বর্জ্য অপসারণ কার্যক্রম পরিদর্শন করবেন বলে জানিয়েছেন সংস্থাটির জনসংযোগ কর্মকর্তা আবু নাছের।

 

জানা যায়, মহানগরীর ২৬ খালের মধ্যে ১৫টি খাল ডিএসসিসি এবং ১১টি খাল ডিএসসিসিতে পড়েছে।

ডিএসসিসি মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে ন‚র তাপস বলেন, নতুন বছরের প্রথম দিন শুক্রবার হওয়ায় তার পরের দিন, শনিবার থেকেই আমরা প্রাথমিকভাবে ক্র্যাশ প্রোগ্রাম হাতে নিয়েছি। জিরানি খাল, মান্ডা খাল ও শ্যামপুর খাল এবং পান্থপথ বক্স কালভার্ট ও সেগুন বগিচা বক্স কালভার্ট থেকে বর্জ্য অপসারণ করা হবে। দীর্ঘদিনের জমে থাকা বর্জ্য যা শক্ত হয়ে গিয়েছে, সেগুলো অপসারণের বিশাল কর্মযজ্ঞ আমরা হাতে নিয়েছি। তিনি আরো বলেন, আগামী মার্চের মধ্যে এই তিনটি খাল ও দুটি বক্স কালভার্ট থেকে বর্জ্য অপসারণ শেষ করার লক্ষ্য নিয়ে কাজ করছি।

Author: Faruk

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *