মেয়েদের শিক্ষা ও জীবনমান উন্নয়নের প্রশংসায় এডিবি

মেয়েদের শিক্ষা ও জীবমান উন্নয়নে বাংলাদেশের সাফল্যের ভূয়সী প্রশংসা করেছে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি)। এডিবি বলছে, বাংলাদেশ মেয়েদের শুধু স্কুলগামীই করেনি তাদের ক্যারিয়ার বা জীবনযাত্রারও উন্নতি করেছে। একটি সহজ, স্বল্পব্যয় উপবৃত্তির কর্মসূচীর মাধ্যমে একাধিক স্তরে মেয়েদের জীবনযাত্রার উন্নতি করেছে। করোনা মহামারীর সঙ্গে লড়াই করে এমন উদ্যোগ বাস্তবায়ন বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে একটা দৃষ্টান্ত সৃষ্টি করেছে বলে জানায় এডিবি।

 

সোমবার এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বাংলাদেশের সাফল্যের প্রশংসা করে এডিবি। জানা গেছে, ১৯৯৪ সালে বাংলাদেশে একটি সহজ, স্বল্পব্যয় উপবৃত্তি কর্মসূচী শুরু হয়। যা পরবর্তীতে পাকিস্তান এবং কিছু উপ-সাহারান আফ্রিকান দেশে যেমন রুয়ান্ডা এবং ঘানাতে শুরু হয় এমন উদ্যোগ। শিক্ষার জন্য সামান্য আর্থিক সহায়তার মাধ্যমে এ প্রোগ্রামটি তার লক্ষ্যকে ছাড়িয়ে সাফল্য অর্জন করেছে।

 

এ কর্মসূচীর আওতায় গ্রামাঞ্চলের মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত প্রতিটি মেয়ের কিছু শর্তপূরণ করা হয়। যেমন- বিদ্যালয়ে ৭৫ শতাংশ উপস্থিতি, একাডেমিক দক্ষতার কিছু স্তর অর্জন, ৪৫ শতাংশ নম্বর পাওয়া ও মাধ্যমিক স্কুল শেষ না হওয়া পর্যন্ত অবিবাহিত থাকা। কর্মসূচীর উপকারভোগী সংখ্যা দ্বিগুণের বেশি ছাড়িয়ে গেছে। বছরের পর বছর ধরে নারী কল্যাণে একাধিক বিষয়ে অবদান রেখেছে এ কর্মসূচী। স্কুল অর্জন, কর্মসংস্থান, স্বামী/স্ত্রী নির্বাচন ও প্রজনন বিষয়ে।

115000cookie-checkমেয়েদের শিক্ষা ও জীবনমান উন্নয়নের প্রশংসায় এডিবি

Author: Faruk

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *