এবার বিহার সীমান্তে নেপাল পুলিশের গুলি, ভারতীয় যুবতীকে আটক

ভারতের দখলকৃত কয়েকটি অঞ্চল নিজেদের মানচিত্রে অন্তর্ভুক্তি, নিজের জনগণ কর্তৃক ভারতের সীমান্ত পিলার গুঁড়িয়ে দেওয়ার পর একাধিকবার সীমান্তে গুলি চালিয়েছে নেপাল সরকার। এবার নেপালের পুলিশ সন্তান-সহ এক ভারতীয় যুবতীকে আটক করায় বিহার সীমান্তে প্রবল উত্তেজনা ছড়িয়েছে পড়েছে।

শুধু তাই নয়, এই নিয়ে বচসার এক পর্যায়ে নেপালের পুলিশ গুলিও চালায় বলে জানা গেছে। চাঞ্চল্যকর এই ঘটনাটি ঘটেছে বিহারের পূর্ব চম্পারণ জেলার গোধাশান থানার অন্তর্গত খারসালওয়া এলাকায়।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, গতকাল শুক্রবার খারসালওয়া এলাকার বাসিন্দা ওই যুবতী সন্তানকে সঙ্গে নিয়ে ভারত-নেপাল সীমান্তের কাছাকাছি জায়গায় ঘাস কাটছিলেন। এমতাবস্থায় নেপাল পুলিশের কয়েকজন সদস্য সেখানে ওই যুবতীকে ঘাস কাটতে বাঁধা দেয়। যুবতীটি তাদের কথার প্রতিবাদ জানিয়ে বলেন, তিনি ভারতীয় ভূখণ্ডের মধ্যেই রয়েছেন। এই কথা শুনেই ওই পুলিশকর্মীরা তাঁকে বেধড়ক মারধর করে। তারপর সন্তান-সহ তাঁকে নেপালের সীমান্তের মধ্যে থাকা পুলিশ পোস্টে তুলে নিয়ে যায়।

এদিকে এই ঘটনার খবর ছড়িয়ে পড়তেই বিহারের খারসালওয়া এলাকার মানুষ সীমান্তের কাছে গিয়ে প্রতিবাদ জানাতে থাকেন। শুরু হয় তুমুল গন্ডগোল। পরিস্থিতি ভয়াবহ হয়ে উঠছে দেখে নেপালের পুলিশকর্মীরা গুলিও চালায় বলে অভিযোগ। খবর পেয়ে পূর্ব চম্পারণের পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ আনে ও সন্তান-সহ যুবতীকে উদ্ধার করে।

বিষয়টিকে কেন্দ্র করে এলাকায় প্রচণ্ড উত্তেজনা রয়েছে। কেন ওই মহিলাকে পণবন্দি করা হয়েছিল তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

Author: Faruk

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *