ছেলে থাকে আমেরিকায়, ঘরে তিনদিনের বীভত্স লাশ মিলল মায়ের!

স্বামী মারা গেছেন প্রায় ৫ বছর আগে। ছেলে থাকেন বিদেশে। তাই ভারতের টালিগঞ্জের ৮৮ নম্বর ওয়ার্ডের সোনারানি দাসের বাড়িতে একাই থাকতেন ৭০ বছর বয়সী বৃদ্ধা।

প্রায় তিনদিন ধরে ওই বাড়ির থেকে পচা গন্ধ পাচ্ছিলেন প্রতিবেশীরা। গন্ধটা বাড়তেই পুলিশে খবর দেন প্রতিবেশীরা। পরে সেই বৃদ্ধার বাড়ি ভেঙে মেলে বীভত্স্য দৃশ্য।

বিছানার ওপর পড়ে রয়েছে সম্পূর্ণ পচে যাওয়া একটা লাশ। শরীর থেকে রস নিঃসৃত হতে শুরু করেছে। চামড়া কালো হয়ে খসে পড়ছে। দেখে বোঝবার উপায় নেই, দেহটি আদৌ কার! দৃশ্য দেখে গা পাকিয়ে ওঠে দুঁদে পুলিশ কর্তাদেরও।

প্রতিবেশীরা জানাচ্ছেন, বৃদ্ধা বাড়িতে একাই থাকতেন, ছেলে থাকেন আমেরিকাতে।

প্রশ্ন উঠছে, এই কয়েকদিনে কি একবারও মাকে ফোন করে খোঁজ নেননি ছেলে। তা না হলে, এইভাবে মায়ের শরীরে পচন ধরে! প্রতিবেশীরাও আফসোস করছেন, যখন বৃদ্ধার দেখা মিলছিল না ঘরের বাইরে, তখন অন্তত একবারের জন্য খোঁজ নেওয়া উচিত ছিল! আপাতত দেহটি ময়নাতদন্তের জন্য পাঠিয়েছে পুলিশ।

17450cookie-checkছেলে থাকে আমেরিকায়, ঘরে তিনদিনের বীভত্স লাশ মিলল মায়ের!

Author: Faruk

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *