লাব্বাইক ধ্বনিতে মুখর আরাফাতের ময়দান, আরাফার দিনের সর্বশ্রেষ্ঠ দোয়া

আজ পবিত্র হজ। সূর্যোদয় থেকে সূর্যাস্ত পর্যন্ত আরাফাতের ময়দানে অবস্থান করবেন হাজিরা। আরাফাতের ময়দানে উপস্থিত হওয়া হজের অন্যতম ফরজ। হাজিরা আজ সূর্যাস্ত পর্যন্ত ঐতিহাসিক এই ময়দানে অবস্থান করে আল্লাহর জিকিরসহ অন্যান্য ইবাদতে মশগুল থাকবেন।

নবী (সাঃ) বলেন, “শ্রেষ্ঠ দো‘আ হচ্ছে আরাফাত দিবসের দো‘আ। আর আমি এবং আমার পূর্ববর্তী নবীগণ যা বলেছি তার মধ্যে শ্রেষ্ঠ হচ্ছে:

« لاَ إِلَهَ إِلاَّ اللَّهُ وَحْدَهُ لاَ شَرِيكَ لَهُ، لَهُ الْمُلْكُ وَلَهُ الْحَمْدُ وَهُوَ عَلَى كُلِّ شَيْءٍ قَدِيرٌ».
(লা ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু ওয়াহদাহু লা শারীকা লাহু, লাহুল মূলকু ওয়া লাহুল হামদু, ওয়া হুয়া ‘আলা কুল্লি শাই’ইন ক্বাদীর)।

একমাত্র আল্লাহ ছাড়া কোনো হক্ব ইলাহ নেই, তাঁর কোনো শরীক নেই; রাজত্ব তাঁরই, সমস্ত প্রশংসাও তাঁর; আর তিনি সকল কিছুর উপর ক্ষমতাবান।”
(তিরমিযী নং ৩৫৮৫, হিসনুল মুসলিম)

এ দোয়ার ফযিলত আরও কত ব্যপক দেখুন-

আমর বিন শুয়াইব, তিনি তার পিতা হতে এবং তার পিতা তার (আমরের) পিতামহ হতে এবং তিনি রাসূলুল্লাহ (সাঃ) হতে বর্ণনা করেছেন, তিনি বলেন, যে ব্যক্তি সূর্যের উদয় ও অস্তের পূর্বে (অর্থাৎ সকালে সূর্য ওঠার আগে এবং বিকালে সূর্য ডোবার আগে)

১০০ বার বলবে- سُبْحَانَ اللَّهِ (সুবহানাল্লা-হ) “আল্লাহ পবিত্র- তার জন্য তা ১০০টি (মক্কায় কুরবানীযোগ্য) উষ্ট্রী অপেক্ষা অধিক শ্রেষ্ঠ।

যে ব্যক্তি সূর্যের উদয় ও অস্তের পূর্বে ১০০ বার বলবে-
لْحَمْدُ لِلَّهِ، (আলহামদু লিল্লাহ) “সকল প্রশংসা আল্লাহরই” তার জন্য তা আল্লাহর পথে (জিহাদের) জন্য সওয়ারী ১০০টি ঘোড়া অপেক্ষা শ্রেষ্ঠতর।
যে ব্যক্তি সূর্যের উদয় ও অস্তের পূর্বে ১০০ বার বলবে
اللَّهُ أَكْبَر
(আল্লা-হু আকবার) “আল্লাহ সবচেয়ে বড়” তার জন্য তা ১০০টি ক্রীতদাস স্বাধীন করা অপেক্ষা শ্রেষ্ঠতর।

আর যে ব্যক্তি সূর্যের উদয় ও অস্তের পূর্বে ১০০ বার বলবে –
لاَ إِلَهَ إِلاَّ اللَّهُ وَحْدَهُ لاَ شَرِيكَ لَهُ، لَهُ الْمُلْكُ وَلَهُ الْحَمْدُ وَهُوَ عَلَى كُلِّ شَيْءٍ قَدِيرٌ
(লা ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু ওয়াহদাহু লা শারীকা লাহু, লাহুল মূলকু ওয়া লাহুল হামদু, ওয়া হুয়া আলা কুল্লি শাই’ইন ক্বদীর।
“আল্লাহ ছাড়া কোনো হক্ব ইলাহ নেই, তাঁর কোনো শরীক নেই, রাজত্ব তাঁরই, সকল প্রশংসা তাঁরই এবং তিনি সবকিছুর উপর ক্ষমতাবান।”

সে ব্যক্তির চেয়ে শ্রেষ্ঠ আমল নিয়ে কিয়ামতে আর অন্য কেউ উপস্থিত হতে পারবে না। অবশ্য যদি কেউ তারই অনুরূপ অথবা তার চেয়ে অধিকবার ঐ যিকির বলে থাকে তবে সে পারবে”।(নাসাই সুনানে কুবরা- ১০৬৫৭, হাদিসটি সহিহ)

অনেক, অনেক বেশী ফযিলতপূর্ণ দোয়া এটি, আমরা আমল করার চেষ্টা করবো ইন্-শা-আল্লাহ।

23740cookie-checkলাব্বাইক ধ্বনিতে মুখর আরাফাতের ময়দান, আরাফার দিনের সর্বশ্রেষ্ঠ দোয়া

Author: Faruk

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *