লোকজনকে বাঁচাতে ম্যানহোলের সামনে ৭ ঘণ্টা দাঁড়িয়ে নারী

শ্রাবণের কোনো একদিন মৌসুমি বৃষ্টিপাতে যখন বিপর্যস্ত মুম্বাই, সড়কে পানি জমে ভোগান্তিতে মুম্বাইবাসী, ওইদিন লোকজনকে দুর্ঘটনা থেকে বাঁচাতে বৃষ্টির মধ্যে টানা ৭ ঘণ্টা ঢাকনাবিহীন একটি ম্যানহোলের সামনে দাঁড়িয়ে ছিলেন এক নারী। সিটি করপোরেশনের লোকজন আসার পর তিনি ওই স্থান ত্যাগ করেন।

৫০ বছর বয়সী আট সন্তানের ওই জননীর নাম কান্তা মুর্তি কল্যাণ। চলমান করোনা পরিস্থিতিতে ঘরবাড়ি ও জমানো অর্থ ফুরিয়ে ফুল বিক্রি করে তিন সন্তানের লেখাপড়া ও সংসার চালাচ্ছেন। বিয়ে দিয়েছেন পাঁচ সন্তানের।

ভারতীয় একটি সংবাদ সংস্থাকে তিনি বলেন, ফুল বিক্রি করে আমি আমার তিন সন্তানের পড়ালেখা ও সংসারের খরচ বহন করছি। রেল দুর্ঘটনায় শিকার স্বামী প্যারালাইজড হয়ে গৃহবন্দি। পরিবারে আমিই এখন একমাত্র উপার্জনক্ষম ব্যক্তি।

এদিকে বৃষ্টির মধ্যে ম্যানহোলের সামনে দাঁড়িয়ে থাকা ওই নারীর ভিডিওটি ভাইরাল হয়েছে। এ ঘটনায় কান্তা মুর্তি একদিকে যেমন প্রশংসিত হচ্ছেন, অন্যদিকে রোষাণলে পড়তে হয়েছে করপোরেশনের দায়িত্বশীলদের।

ঘটনার সময় লোকজন যখন দাঁড়িয়ে থাকার কারণ জিজ্ঞাসা করে বিষয়টি পরিষ্কার হয়, তখন তাকে সাধুবাদও জানানো হয়। কান্তা মুর্তি বলেন, এমন পরিস্থিতিতে আমি যা স্বাভাবিক তাই চিন্তা করেছি এবং করেছিও। না হলে লোকজনকে দুর্ঘটনায় পড়তে হতো।

গত ৪ আগস্ট (মঙ্গলবার) মহারাষ্ট্রে রাতভর বৃষ্টিপাত হয়। এতে মুম্বাই, থানে, পালঘর, রাইগাদ, রত্নাগিরিসহ আশপাশের এলাকা পানিতে তলিয়ে যায়।

36800cookie-checkলোকজনকে বাঁচাতে ম্যানহোলের সামনে ৭ ঘণ্টা দাঁড়িয়ে নারী

Author: Faruk

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *