বিশ্ববিদ্যালয় থেকে কম্পিউটারগুলো চুরি করেছিলেন যুবলীগ নেতা

গোপালগঞ্জ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে চুরি হওয়া ৪৯টি কম্পিউটারের মধ্যে ৩৪টি কম্পিউটার উদ্ধার করেছে গোপালগঞ্জ সদর থানা পুলিশ।

বৃহস্পতিবার (১৩ আগস্ট) রাতে রাজধানী ঢাকার মহাখালী আমতলী এলাকার ক্রিস্টাল আবাসিক হোটেলে অভিযান চালিয়ে চুরি হওয়া এসব কম্পিউটার উদ্ধারসহ ২ জনকে আটক করে পুলিশ।

গোপালগঞ্জ সদর থানার উপ-পুলিশ পরিদর্শক ও মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা মো. মিজানুর রহমান জানান, পবিত্র ঈদুল আজহার দীর্ঘ ছুটির মধ্যে গোপালগঞ্জ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের একুশে ফেব্রুয়ারি গ্রন্থগার লাইব্রেরী থেকে ৪৯টি কম্পিউটার চুরির ঘটনা ঘটে।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার ড. নুর উদ্দিন আহম্মেদ বাদি হয়ে গোপালগঞ্জ সদর থানায় গত ১০ আগস্ট একটি মামলা করেন।

পরবর্তীতে প্রযুক্তির সহায়তায় ও গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ঢাকার বনানী থানার সহযোগিতায় আমরা মহাখালী আমতলী এলাকার ক্রিস্টাল আবাসিক হোটেলের ৪০৪ নং কক্ষে অভিযান চালিয়ে ৩৪টি কম্পিউটার ও ৪০টি কম্পিউটার রাখার স্ট্যান্ড উদ্ধার করা হয়। এ সময় হোটেলের এক মালিক দুলাল ও হোটেল বয় হুমায়ুন কবিরকে আটক করা হয়।

হোটেল মালিক দুলাল প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানায় সে কম্পিউটার গুলো ওই হোটেলের অপর মালিক গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার গোপিনাথপুর ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি পলাশ শরীফের কাছ থেকে ক্রয় করেছে।

বিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার ড. নুর উদ্দিন আহম্মেদ বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের যে ৪৯টি কম্পিউটার চুরি হয়েছে তার মধ্যে ৩৪টি কম্পিউটার উদ্ধার হয়েছে। এটা আমারা গণমাধ্যমের মাধ্যমে জেনেছি তবে এখনও অফিসিয়ালভাবে জানতে পারিনি। এ ঘটনায় পুলিশের পাশাপাশি বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন গঠিত ৭ সদস্যের একটি তদন্ত কমিটিও কাজ করছে।

এর আগে এ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আরও কম্পিউটার চুরির ঘটনা ঘটে। ২০১৭ সালে ৫০টি, ২০১৮ সালে ৪৭টি কম্পিউটার চুরি হয়।

46380cookie-checkবিশ্ববিদ্যালয় থেকে কম্পিউটারগুলো চুরি করেছিলেন যুবলীগ নেতা

Author: Faruk

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *