প্রেমিকার চোখের সামনে গায়ে আগুন লাগিয়ে বিয়ের প্রস্তাব!

গায়ে আগুন লাগালেন। তারপরেই প্রেমিকাকে বিয়ের প্রস্তাব দিলেন প্রেমিক। এমনই চাঞ্চল্য ছড়ানো কাণ্ড ঘটেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে। ঘটনা চক্রে প্রেমিক রিকি এশ একজন পেশাদারি স্টান্টম্যান। এসব আদব কায়দা বিষয়ে আগে থেকেই সচেতন ছিলেন। তাই বড়সড় বিপদ এড়ানো গিয়েছে।

এই ঘটনার একটি ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে। ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, ৫২ বছরের স্টান্টম্যান রিকি এশ নিজের গায়ে, পিঠে এবং পায়ে আগুন লাগিয়ে দিলেন। তারপরেই প্রেমিকা ক্যাটরিনা ডবসনকে বিয়ের প্রস্তাব দেন।

আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমের খবরে জানা যায়, রিকি এশের প্রেমিকা ডবসন পেশায় একজন নার্স। তিনি অবশ্য আগে থেকেই জানতেন প্রস্তাব দেওয়ার সময় বয়ফ্রেন্ড আগুন জ্বালাবেন। তবে তিনি ভেবেছিলেন, সেটা পুরোটাই ফটোশুটের জন্য। আগুন লাগলেও ভালোমতোই সতর্কতা নিয়ে এসেছিলেন তিনি। অগ্নিরোধক অন্তর্বাস পড়ার পাশাপাশি মুখে, ঘাড়ে এবং মাথায় ফায়ার প্রুফ জেল লাগান। একজন ক্যামেরাম্যান এবং প্রোডিউসারের সঙ্গে জরুরিকালীন অবস্থার কথা ভেবে একদল নিরাপত্তা কর্মীকেও দায়িত্ব দেন তিনি।

ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, ২৭ বছরের স্টান্ট ডাবলের অভিজ্ঞতা থাকা এশ গায়ে আগুন লাগিয়েই এক পায়ে হাঁটু মুড়ে বসে প্রস্তাব দিচ্ছেন প্রেমিকাকে। ডবসন ‘হ্যাঁ’ বলার পরেই আগুন নেভানোর দায়িত্বে থাকা দুজন ফায়ার এক্সটিনগুইজার নিয়ে ছুটে আসেন।

এশ জানান, গায়ে আগুন লাগিয়ে প্রস্তাব দেওয়ার থেকে ভালো আর কিছুই হতে পারে না। পেশাদার ডাবল হিসেবে হলিউডে বেশ পরিচিতি রয়েছে ব্রিটিশ এই ব্যক্তির। নিউইয়র্ক পোস্ট জানিয়েছে, রিচার্ড বার্টন থেকে জনি ডেপের বডি ডাবল হয়েছেন তিনি।

এশের প্রেমিকা ডবসন জানান, খুব দারুণভাবে এশ আমাকে প্রোপোজ করল। এশ নিজের কাজের প্রতি ব্যাপক প্যাশনেট। প্রতিটি শ্বাস-প্রশ্বাসে কাজ নিয়েই বাঁচে। তাই এমন প্রস্তাবই একদম পারফেক্ট।

Author: Faruk

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *