সোমালিয়ায় হোটেলে সন্ত্রাসী হামলায় নিহত ১৭

সোমালিয়ার রাজধানী মোগাদিসুতে একটি হোটেলে দেশটির সশস্ত্র সংগঠন আল-শাবাবের অস্ত্রধারীদের বন্দুক ও বোমা হামলায় অন্তত ১৭ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন বহু মানুষ। দেশটির পদস্থ কর্মকর্তা ও প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে এই খবর প্রকাশ করেছে কাতারভিত্তিক জনপ্রিয় গণমাধ্যম আলজাজিরা।

সোমালিয়া সরকারের মুখপাত্র মুখতার ওমর জানান, রোববার রাতে হোটেলটিতে থাকা লোকজনকে জিমি করে রাখা বন্দুকধারীরা। পরে তাদের উদ্ধারে আইনশৃংখলা বাহিনী সেখানে যায়। এ সময় দুপক্ষের মধ্যে ৩ ঘণ্টা গোলাগুলি হয়। এ সময় আত্মঘাতী গাড়ি বোমার বিস্ফোরণ ঘটায় জঙ্গিরা।

এ সময় অন্তত ১৭ জন নিহত হন। এ সময় ৪ হামলাকারীও নিহত হন বলে সরকারের মুখপাত্র দাবি করেন।

পুলিশ কর্মকর্তা আহমদ বাসান গণমাধ্যমে জানান, এ ঘটনায় আহত ১২ জনের মধ্য দুজন সরকারি কর্মকর্তা, ৩ জন নিরাপত্তাকর্মী, ৪ জন বেসামরিক এবং অজ্ঞাত পরিচয় ৪ জন রয়েছেন।
এলিট নামের ওই বিলাসবহুল হোটেলটি তরুণদের কাছে বেশ জনপ্রিয়।

সোমালিয়ার তথ্য মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ইসমাইল মুক্তার সংবাদমাধ্যমকে জানান, উদ্ধার অভিযানে হোটেলে আটকে পড়া লোকজনকে দ্রুত বের করে আনেন আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা।

জঙ্গি সংগঠন আল-কায়দার সহযোগী সংগঠন হিসেবে পরিচিত আল-শাবাব এ হামলার দায় স্বীকার করেছে।

Author: Faruk

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *