আশ্রয় না পেয়ে কিশোরের আত্মহত্যা

নেদারল্যান্ডসে বসবাসের অনুমতি চেয়ে করা আবেদন প্রত্যাখ্যাত হওয়ায় আলী ঘেজাবি নামে ১৪ বছর বয়সী এক সিরীয় কিশোর আত্মহত্যা করেছে। সে যুদ্ধ বিধ্বস্ত দেশ সিরিয়া থেকে উন্নত জীবনের আশায় পরিবারে সঙ্গে পাঁচ বছর আগে লেবাননের শরণার্থী শিবিরে এসেছিলেন। খবর ডেইলি সাবাহর।

খবরে বলা হয়েছে, উন্নত জীবনের আশায় পাঁচ বছর আগে পরিবার সঙ্গে লেবাননে আসে ওই কিশোর। এরপর তাদের ঠাই হয় দেশটির একটি শরণার্থী শিবিরে। পরে সেখান থেকে তারা স্পেনে চলে যায়। কিন্তু সেখানে কাজ না পেয়ে মানবেতর জীবন যাপন করতে হয় তাদের।

ভালো থাকার আশায় পরে আলী ঘেজাবির পরিবার নেদারল্যান্ডসে চলে যায়। সেখানে গিয়ে শরণার্থী হিসেবে আশ্রয় প্রার্থনা করে তার পরিবার।

দেশটির সরকার তাদের ওই আবেদন প্রত্যাখ্যান করায় সিরীয় ওই কিশোর চরম হতাশায় আত্মহত্যা করেছে।

নেদারল্যান্ডসের দক্ষিণাঞ্চলীয় প্রদেশ লিমবার্গের একটি শরণার্থী শিবিরে বসবাস করছে আলী ঘেজাবির পরিবার।

সোমবার স্থানীয় সংবাদমাধ্যম আলজেমিন ডাগব্লাডকে দেয়া সাক্ষাৎকারে আলীর মা আয়শা বলেন, আমাদের আশ্রয় প্রার্থনার আবেদন সরকার খারিজ করে দেয়ার পর আলী প্রচণ্ড মর্মাহত হয়।

সে কারও সঙ্গে কথা বলতো না, এমনকি খাওয়া-দাওয়াও ছেড়ে দেয়। আলীর আত্মহত্যার ঘটনায় শরণার্থী শিবিরে শোকের ছায়া নেমে আসে। অনেকেই নেদারল্যান্ডস সরকারের এমন আচরণের কঠোর সমালোচনা করেছেন।

54460cookie-checkআশ্রয় না পেয়ে কিশোরের আত্মহত্যা

Author: Faruk

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *