নাটক করেও রিমান্ড এড়াতে পারলেন না শাহেদ

অসুস্থতার বাহানা করেও শেষ পর্যন্ত রিমান্ড এড়াতে পারেনি রিজেন্ট হাসপাতালের মালিক শাহেদ করিম। মঙ্গলবার (১৮ আগস্ট) সকালে তাকে বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে কয়েকদফা পরীক্ষা নিরীক্ষা করে চিকিৎসকরা তাকে পুরোপুরি সুস্থ বলে মত দেন। দুপুর দুটা থেকে ফের দ্বিতীয় দিনের জিজ্ঞাসাবাদের মুখোমুখি হন শাহেদ।

দুদকের রিমান্ড এড়াতে সোমবার রাতে অসুস্থতার ভান শুরু করেন রিজেন্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যান শাহেদ করিম। সকালে রিমান্ডে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য হেফাজতে রাখা সংশ্লিষ্ট থানা থেকে আনতে গেলেই শুরু হয় বিপত্তি। দুদক কার্যালয়ে না নিয়ে, হাসপাতালে নিয়ে যেতেই শুরু হয় পরীক্ষা নিরীক্ষা।

টানটান উত্তেজনায় হঠাৎই ভাটা পড়ে, যখন তিনি স্বাভাবিক আচরণ শুরু করেন। আর ক্যামেরা দেখেই নিজেকে সরিয়ে নেন বারবার।

এর আগেও রিমান্ডে নেয়ার আবেদন করলে নিজেকে করোনা পজিটিভ বলে দাবি করেন রিজেন্ট হাসপাতালের মালিক শাহেদ। তবে শেষ পর্যন্ত ধোপে টেকেনি অসুস্থতার দাবি। তিন দফা হয় পরীক্ষা নিরীক্ষা।

চিকিৎসক জানান, পুরোপুরি সুস্থ তিনি। দুপুর পৌনে দুটায় দ্বিতীয় দিনের রিমান্ডে দুদক কার্যালয়ে নিয়ে যাওয়া হয় তাকে।

পদ্মা ব্যাংকের ঋণ জালিয়াতির মাধ্যমে দু কোটি ৭২ লাখ টাকার দুর্নীতির মামলায় দুপুর ২টায় দ্বিতীয় দিনের জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করেন দুদকের তদন্ত কর্মকর্তা।

এছাড়াও এরই মধ্যে অন্যান্য মামলা ও অভিযোগের অনুসন্ধান ও তদন্তে তাকে জিজ্ঞাসাবাদের আভাস দিয়েছেন দুদক সচিব মুহাম্মদ দিলোয়ার বখত।

Author: Faruk

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *