ফাহিম হত্যা : হ্যাসপিলকে আদালতে তোলার তারিখ পেছালো

পাঠাওয়ের সহপ্রতিষ্ঠাতা ফাহিম সালেহ হত্যার ঘটনায় আটক ফাহিমের কর্মচারী টাইরেস ডেঁভো হ্যাসপিলকে নিউইয়র্কের আদালতে হাজির করানো হয়নি। ১৭ আগস্ট তাকে আদালতে হাজির করানোর কথা ছিল।

আদালত সূত্রে জানা যায়, ১৯ আগস্ট হ্যাসপিলকে নিউইয়র্ক ক্রিমিনাল কোর্টে (পার্ট ১৯) উপস্থাপন করা হবে। হ্যাসপিলের মামলায় লিগ্যাল এইডের আইনজীবী হিসেবে মিচেল, নেভিল অনিল ডেক্সটারের নাম লেখা আছে।

ঠিক কী কারণে হ্যাসপিলকে আদালতের হাজির করানোর তারিখ ১৭ থেকে ১৯ আগস্ট করা হয়েছে, আদালতের রেকর্ডে এ নিয়ে কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি।

গত ১৩ জুলাই ফাহিম ম্যানহাটনে তার ব্যক্তিগত অ্যাপার্টমেন্টে হত্যাকাণ্ডের শিকার হন। ফাহিম যখন অ্যাপার্টমেন্টের লিফটে উঠছিলেন, তখন তার পিছু নিয়ে দ্রুত লিফটে ঢুকে পড়েন এক ব্যক্তি। তদন্তকারী ব্যক্তিরা বলছেন, ওই ব্যক্তিই টাইরেস হ্যাসপিল। তার সঙ্গে থাকা ব্যাগে ইলেকট্রিক করাত ছিল বলে তাদের ধারণা। লিফটের সিসিটিভির ফুটেজে দেখা গেছে, ফাহিম ওই ব্যক্তিকে কিছু জিজ্ঞেস করছেন। এরপর দুজনের মধ্যে কিছু আলাপ হতেও দেখা গেছে। পরে ফাহিমকে কিংকর্তব্যবিমূঢ় দেখাচ্ছিল।

সিসিটিভি ফুটেজে দেখা গেছে, ফাহিম লিফট থেকে ঘরে পা রাখতেই মাস্ক পরিহিত ওই ব্যক্তি ফাহিমকে আক্রমণ করেন। পেছন থেকে আঘাতের পর ফাহিম লিফট থেকে বের হতেই সামনের দিকে পড়ে যান। এরপর লিফটের দরজা বন্ধ হওয়ায় সিসিটিভির ফুটেজ আর রেকর্ড হয়নি।

তদন্তকারী ব্যক্তিরা মনে করেন, এরপরই টাইরেস ছুরিকাঘাত করে ফাহিমকে হত্যা করেন। পরে তিনি কার সার্ভিস ডেকে হোম ডিপোয় যান। কার সার্ভিসের সেই পেমেন্ট তিনি পরিশোধ করেন ফাহিমের ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করে। হোম ডিপো থেকে কিছু ক্লিনিং আইটেমও কেনেন টাইরেস।

ফাহিমের অ্যাপার্টমেন্ট ভবনের লিফটের সিসিটিভি ক্যামেরায় দেখা যায়, পরদিন ১৪ জুলাই দুপুরে আবার ফিরে আসেন টাইরেস। সঙ্গে ছিল রিচার্জেবল ভ্যাকুয়াম। পুলিশের মতে, এটি হত্যার চিহ্ন মুছে ফেলতে ব্যবহার করা হয়েছিল। ১৪ জুলাই দুপুরে ইলেকট্রিক করাত ব্যবহার করে ফাহিমের দেহ খণ্ড খণ্ড করেন হ্যাসপিল। এ সময় ফাহিমের বোন অ্যাপার্টমেন্টের দরজা নক করেন। তিনি পুলিশকে ‘ওয়েলফেয়ার চেকের’ (নিকটাত্মীয় বা প্রতিবেশীর অপমৃত্যু হয়েছে, এ রকম আশঙ্কায় পুলিশের সহায়তা চাওয়া) অনুরোধ জানান। তবে পুলিশ আসার আগেই ভবনের পেছনের সিঁড়ি দিয়ে টাইরেস পালিয়ে যান।

ক্রেডিট কার্ডের লেনদেনের সূত্র ধরেই ১৭ জুলাই প্রায় এক মাইল দূরের একটি অ্যাপার্টমেন্ট থেকে টাইরেস ডেঁভো হ্যাসপিলকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। জামিন নাকচ করে আদালত তাকে কারাগারে পাঠান।

55210cookie-checkফাহিম হত্যা : হ্যাসপিলকে আদালতে তোলার তারিখ পেছালো

Author: Faruk

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *