বিশ্বের সবচেয়ে বয়স্ক ব্যক্তির মৃত্যু

বিশ্বের বয়স্কতম জীবিত মানুষদের একজন সাউথ আফ্রিকার ১১৬ বছর বয়সী ফ্রেডি ব্লম মারা গেছেন। ১৯১৮ সালের স্প্যানিশ ফ্লু মহামারির সময় যারা প্রাণে বেঁচে যান, ফ্রেডি তাদের অন্যতম।

অ্যাসোসিয়েট প্রেস (এপি) ফ্রেডি ব্লমের পরিবারের বরাত দিয়ে জানায়, শনিবার কেপ টাউনে তিনি মারা যান।

সাউথ আফ্রিকার কেপ প্রদেশের গ্রেট উইন্টারবার্গ পর্বতের পাদদেশে আ্যডেলেইডের প্রত্যন্ত গ্রামাঞ্চলে ১৯০৪ সালের ৪ঠা মে জন্মগ্রহণ করেন ফ্রেডি। কিছুদিন আগেই এএফপির কাছে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি জানান, ঈশ্বরের আশীর্বাদে তিনি এত দীর্ঘ জীবন বেঁচে রয়েছেন।

গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডের তালিকায় বর্তমানে বিশ্বের সবচেয়ে বয়স্ক জীবিত ব্যক্তি ১১২ বছর বয়সী ব্রিটন বব ওয়েটন। তবে সাউথ আফ্রিকার গণমাধ্যমগুলোতে এত দিন অনানুষ্ঠানিকভাবে ফ্রেডিকেই সবচাইতে বয়স্ক ব্যক্তি হিসেবে দাবি করা হতো।

ব্লম যখন নেহাতই কিশোর, তখন তার পুরো পরিবারের মৃত্যু হয় স্প্যানিশ ফ্লুতে। তবে ভাগ্যক্রমে ব্লম বেঁচে যান। ৪৬ বছরের দাম্পত্য জীবনে তিন সন্তানের জনক হন তিনি। নাতিপুতির সংখ্যা পাঁচ জন।

পরিবারের পক্ষ থেকে এএফপিকে নাতি আন্দ্রে নাইডু জানান, দু’ সপ্তা আগেও দাদু ৫ পাউন্ড ওজনের হাতুড়ি দিয়ে নিজেই কাঠ কেটেছেন, শক্ত সমর্থ আর গর্বিত মানুষ ছিলেন তিনি। তবে গত তিন দিনে হঠাৎ করেই যেন দুর্বল হয়ে পড়েন বিশালদেহী মানুষটা।

শনিবার কেপ টাউনের টাইগারবার্গ হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়। করোনাভাইরাস নয়, তার মৃত্যু স্বাভাবিক বার্ধক্যজনিত কারণেই হয়েছে বলে জানান নাইডু।

67830cookie-checkবিশ্বের সবচেয়ে বয়স্ক ব্যক্তির মৃত্যু

Author: Faruk

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *