প্রতিরক্ষা সরঞ্জাম দিতে নারাজ জার্মানি, চাপে পাকিস্তান

আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে আরো বিপাকে পাকিস্তান। চীনের সঙ্গে ঘনিষ্ঠতার কারণে ইসলামাবাদের সঙ্গ ছেড়েছে সৌদি আরব। এবার ইমরান খানের দেশকে প্রতিরক্ষা সরঞ্জাম দিতে নারাজ জার্মানিও। ইউরোপের এই দেশের কাছ থেকে সাবমেরিনের বিশেষ সরঞ্জাম কিনতে চেয়েছিল পাকিস্তান। কিন্তু সেই প্রস্তাব খারিজ করে দেন চ্যান্সেলর অ্যাঞ্জেলা মর্কেলের নেতৃত্বাধীন কমিটি।

জানা গেছে, সাবমেরিনের air independent propulsion (AIP) জার্মানির কাছ থেকে কিনতে চেয়েছিল পাকিস্তান। কিন্তু এই AIP মূলত কি জিনিস? বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এই যন্ত্রের মাধ্যমে সাবমেরিন পানির নিচে থাকাকালীন ব্যাটারি চার্জ করতে পারে। ফলে সাবমেরিনগুলো বেশিদিন পানিতে থাকতে সক্ষম হয়। AIP থাকা সাবমেরিনগুলো সাধারণ সাবমেরিনের তুলনায় কয়েক সপ্তাহ বেশি জলের তলায় থাকতে সক্ষম হয়। পাশাপাশি, ডিজেল ইঞ্জিনকে আরও বেশি ক্ষমতা দেয় সাবমেরিনের এই যন্ত্রটি। সেই AIP কিনতে চেয়ে জার্মানির দ্বারস্থ হয়েছিল পাকিস্তান। কিন্তু গত ৬ আগস্ট মর্কেলের নেতৃত্বাধীন জার্মান ফেডারেল সিকিউরিটি কাউন্সিল সেই আবেদন খারিজ করে দেয়।

ওয়াকিবহাল মহল বলছে, মূলত পাকিস্তানের সন্ত্রাস দমনে অনীহা সৃষ্টি হওয়ার কারণেই ইসলামাবাদকে প্রতিরক্ষা সরঞ্জাম দিতে নারাজ হয়েছে জার্মানি। ২০১৭ সালে কাবুলে জার্মানি দূতাবাসের কাছে ট্রাক বোমা বিস্ফোরণে অন্তত ১৫০ জনের প্রাণ গিয়েছিল। সাম্প্রতিকালে, এত ভয়াবহ জঙ্গি হামলা আর কোথাও ঘটেনি। আর এই ঘটনার অভিযোগ উঠেছিল জঙ্গি সংগঠন হাক্কানি গোষ্ঠীর বিরুদ্ধে। মূলত এই হাক্কানি সন্ত্রাসবাদী গোষ্ঠীকে মদত দেয় পাকিস্তান। আর সেই বিস্ফোরণের সঙ্গে যুক্ত অভিযুক্তদের শনাক্ত করতে সাহায্য করেনি পাকিস্তান। একের পর এক এই ধরনের ঘটনার জেরেই এবার পাকিস্তানকে প্রতিরক্ষা সরঞ্জাম দিতে অস্বীকার করল জার্মানি, এমনই মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল।

72750cookie-checkপ্রতিরক্ষা সরঞ্জাম দিতে নারাজ জার্মানি, চাপে পাকিস্তান

Author: Faruk

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *