তিন সন্তানের সামনেই কৃষ্ণাঙ্গ জ্যাকবকে গুলি করে পুলিশ

যুক্তরাষ্ট্রে ব্ল্যাক লাইভ ম্যাটারস প্রতিবাদের মধ্যেই এক কৃষ্ণাঙ্গকে পুলিশের একাধিকবার গুলির ঘটনায় এখন উত্তাল উইসকনসিন প্রদেশ। অভিযুক্ত দুই পুলিশকে কর্তৃপক্ষ কর্মবিরতিতে রেখেছে।

আহত জ্যাকব ব্ল্যাকের অ্যাটর্নির দাবি গাড়িতে অবস্থানরত তার তিন, পাঁচ ও আট বছরের তিন সন্তানের সামনে পুলিশ এই নৃশংস ঘটনা ঘটিয়েছে। তবে গভর্নর জানিয়েছেন আহত কৃষ্ণাঙ্গ জ্যাকব আইসিইউতে আছেন। বর্তমানে তার অবস্থা স্থিতিশীল।

বেন ক্রাম্প নামে তার পারিবারিক অ্যাটর্নি রোববার সন্ধ্যায় এ ঘটনার একটি ভিডিও পোস্ট করেন। ভিডিও ফুটেজটি সোশ্যাল মিডিয়াতে ছড়িয়ে পড়ে। এরপরই বিক্ষোভের সূত্রপাত ঘটে। বিক্ষোভ ঠেকাতে স্টেট কর্মকর্তারা কারফিউ জারি করে, যা সোমবার সকাল অবধি ছিল।

কেনোশা কাউন্ট্রি শেরিফ বিভাগ জানিয়েছেন, দ্বিতীয় কারফিউ সোমবার সন্ধ্যা থেকে মঙ্গলবার সকাল ৭টা পর্যন্ত কার্যকর থাকবে।

শহরে ন্যাশনাল গার্ডকে ডেকে আনা হয়েছে বলে মেয়র জন আন্তারামিয়ান নিশ্চিত করেছেন।

এই ঘটনায় বিক্ষোভকারীরা সোমবার কেনোশা আদালতের সামনে জড়ো হয়। বিক্ষোভকারীদের দমন করতে পুলিশ তাদের উপর গ্যাস নিক্ষেপ করে।

কেনোশা পুলিশকে উইসকনসিন অপরাধ তদন্ত বিভাগের তদন্তভার দেয়া হয়েছে। জানা যায়, তদন্তের তথ্য জেলা অ্যাটর্নি মাইকেল ডি গ্রেভলির কাছে দেয়া হবে। অভিযুক্ত কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগ আনা হবে কিনা তা অফিস নির্ধারণ করবে। গ্রেভেলি বলেন, তদন্তটি ‘প্রাথমিক পর্যায়ে’ রয়েছে।

পুলিশের গুলিতে জর্জ ফ্লয়েড ও ব্রেকোনা টেইলর হত্যার ঘটনার রেশ না কাটতেই আবারো কৃষ্ণাঙ্গ যুবককে গুলির ঘটনা ঘটলো। এছাড়াও জ্যাকব ব্ল্যাককে গুলি করার আগে লুইজিয়ানার লাফায়েটে ট্রেইফোর্ড পেলারিন (৩১) নামের এক কৃষ্ণাঙ্গ ব্যক্তি পুলিশের হাতে নিহত হওয়ায় বিক্ষোভের সূত্রপাত ঘটে।

সূত্র : সিএনএন

Author: Faruk

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *