বারঘরিয়া ইউপি সদস্যকে নিয়ে প্রকাশিত মিথ্যা সংবাদের প্রতিবাদ

গত ২৬ আগস্ট বৃহস্পতিবার কয়েকটি অনলাইন নিউজ পোর্টাল ও জাতীয় দৈনিকে “চাঁপাইনবাবগঞ্জে ভুয়া প্রকল্প দেখিয়ে ৪ লক্ষাধিক টাকা উঠানোর অভিযোগ ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে” শিরোনামে একটি সংবাদ প্রকাশ হয়, যা আমার দৃষ্টিগোচর হয়েছে। সংবাদটিতে উল্লেখ করা অভিযোগগুলো সম্পূর্ণ মিথ্যা, হয়রানিমূলক, বানোয়াট, বিভ্রান্তিকর ও মানহানিকর। আমি দীর্ঘদিন ধরে ইউপি সদস্য হিসেবে সদর উপজেলার ০৯ নং ওয়ার্ডের জনগণের স্বার্থে ও জনসাধারণের কল্যাণে সততা, নিষ্ঠা, ও দায়িত্ববোধ থেকে দায়িত্ব পালন করছি। দায়িত্ব পালনকালে কখনো আমার কোন অনিয়ম-দুর্নীতির অভিযোগ ছিল না। সংবাদটিতে উল্লেখ করা হয়েছে, ২০১৭-১৮ অর্থবছরে এলজিএসপি-৩ এর আওতায় ২টি প্রকল্পে ৪ লক্ষ ৪০ হাজার টাকার কাজ হয়েছে। যা সম্পূর্ণভাবে কাকতালীয়, ভুয়া, মিথ্যা ও বানোয়াট। প্রকৃতপক্ষে, ২০১৭-১৮ অর্থবছরে ০৯ নং ওয়ার্ডের অন্তর্ভুক্ত লক্ষীপুর গ্রামে ১টি প্রকল্পের কাজ হয় এবং তার আর্থিক বাজেট ছিলো ২ লক্ষ ২০ হাজার টাকা। মাস্টারপাড়ায় ধুলুর বাড়ি থেকে লতিবের বাড়ি পর্যন্ত পাইপ ড্রেন এবং মানিক ডাক্তারের বাড়ি হতে মনি’র বাড়ি পর্যন্ত রাস্তা সিসিকরন দুটো কাজই এই ২ লক্ষ ২০ হাজার টাকা বাজেটের একটিই প্রকল্প। যা সংবাদটিতে দুটো প্রকল্প হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে, যার কারনে অর্থের পরিমান তার দ্বিগুণ ধরে ৪ লক্ষ ৪০ হাজার টাকা বলা হয়েছে। এছাড়াও মাস্টারপাড়ায় ধুলুর বাড়ি থেকে লতিবের বাড়ি পর্যন্ত রাস্তা সিসিকরন নয়, সেটি ছিলো পাইপ ড্রেন নির্মান কাজ, যা সম্পন্ন করা হয়েছে। প্রকল্পে যতটুকু নির্দেশনা রয়েছে মানিক ডাক্তারের বাড়ি হতে মনি’র বাড়ি পর্যন্ত রাস্তা সিসিকরন কাজের ঠিক ততটুকুই সম্পন্ন করা হয়েছে। সংবাদটিতে সাবেক ইউপি সদস্য জারমান আলী ফড়িং বক্তব্য দিয়েছেন, তার সময়ে ২০১৫ সালে নাকি প্রকল্পটি বাস্তবায়ন হয়েছে। যা সম্পূর্ণভাবে মিথ্যা। শুধুমাত্র আসন্ন নির্বাচনে প্রার্থী হিসেবে বিজয়ী হতে আমার এবং একজন জনপ্রতিনিধি হিসেবে সামাজিকভাবে আমার সম্মানহানি ও হেনস্তা করার উদ্দেশই সাংবাদিক ভাইদের ভুল ও মিথ্যা তথ্য দিয়ে একটি সংবাদ প্রকাশ করা হয়েছে। আমি সংবাদটির তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি।

 

মো. সেমাজুল ইসলাম হারেজ

ইউপি সদস্য, ০৯ নং ওয়ার্ড, বারোঘরিয়া ইউনিয়ন পরিষদ, সদর উপজেলা, চাঁপাইনবাবগঞ্জ।

77970cookie-checkবারঘরিয়া ইউপি সদস্যকে নিয়ে প্রকাশিত মিথ্যা সংবাদের প্রতিবাদ

Author: Faruk

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *