কৃষকের সার আত্মসাতের ব্যর্থ চেষ্টা চেয়ারম্যানের

মানিকগঞ্জের ঘিওর উপজেলার নালী বাজারে সারের ডিলার আব্দুল মালেকের দোকান ‘নয়ন ট্রেডার্স’ এর সামনে গত দুই মাস যাবত রাখা আছে কৃষকের জন্য সরকারের দেওয়া প্রায় ৫০ বস্তা সার। কয়েক মাস আগেই বিনামূল্যে ওই সার পাওয়ার কথা ছিল কৃষকের। কিন্তু সেই সার এখন নালী বাজারের সারের দোকানের সামনে মজুদ করা আছে।

এলাকাবাসী জানায়, এই ইউনিয়নের কোন কিছুই নাকি তারা সময়মতো পায়না। জানা যায়, দোকানের সামনে রাখা সরকারী সারের মজুদ দেখে এলাকাবাসী সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের অবগত করেন। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয় কয়েকজন কৃষক ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, চেয়ারম্যান এই সরকারী সার কিছু মানুষের মাঝে বিতরণ করে বাকি সার মজুদ করে রেখেছে। তার ইচ্ছা ছিল সার বিক্রি করে দেওয়ার। এজন্যই তিনি কৃষকের সার বাজারের সারের দোকানের সামনে রেখে দিয়েছেন।

তবে নালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল কুদ্দুস মধু বিষয়টি অস্বীকার করে বলেন, সরকারিভাবে বন্যার আগে দেড়’শ বস্তা সার পরিষদে আসে। কৃষকদের মাঝে ১’শ বস্তা সার বন্যার আগেই বিতরণ হয়। বন্যার পানিতে নিচু এলাকার জমি তলিয়ে গেলে কৃষকরা সার না নেওয়াতে ৫০ বস্তা সার গুদামঘরে রেখে দেই। পরে বন্যার সময় সরকারি সহযোগীতায় ভিজিএফ, ভিজিডি এবং জিআর এর চাল আসাতে গুদাম ঘর থেকে সার বের করে গুদামে চাল রাখি। তখন ওই সার বাজারের আব্দুল মালেকের দোকানের সামনে সংরক্ষণ করে রাখা হয়। কৃষকদের বলা আছে তারা প্রয়োজন পরলে বলা মাত্রই এই সার পাবে। ইতোমধ্যে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার সাথে কথা হয়েছে।আগামীকালই কৃষকদের মাঝে এই সার বিতরণ করা হবে।

এ বিষয়ে ঘিওর উপজেলা নির্বাহী অফিসার আইরিন আক্তারের সাথে একাধিকবার মুঠোফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করেও কথা বলা সম্ভব হয়নি।

78040cookie-checkকৃষকের সার আত্মসাতের ব্যর্থ চেষ্টা চেয়ারম্যানের

Author: Faruk

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *