করোনা আক্রান্তের দু’দিন পর সুস্থতার ছাড়পত্র, ৫ দিন পর মৃত্যু

বরগুনার আমতলীতে এক আওয়ামীলীগ নেতার করোনা পজিটিভ রিপোর্ট আসার দু’দিনের মাথায় রহস্যজনকভাবে সুস্থতার ছাড়পত্র দেন আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের এক চিকিৎসক। ছাড়পত্র দেওয়ার ৫ দিনের মাথায় তিনি হঠাৎ অসুস্থ হয়ে মৃত্যুবরণ করেন। এ মৃত্যু নিয়ে জনমনে মিশ্র প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে।

পরিবার সূত্রে জানা গেছে, গত ৯ জুলাই সকালে উপজেলা আওয়ামীলীগ সদস্য ও সাবেক ইউনিয়ন পরিষদ সেক্রেটারি মো. শাহআলম তালুকদার (৭৪) করোনা উপসর্গ জ্বর সর্দি কাশি ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গিয়ে নমুনা দেন। এর ৪ দিন পরে (১৩ জুলাই) রাতে তার করোনা পজিটিভ রিপোর্ট আমতলী হাসপাতালে এসে পৌঁছায়। এ সময় তিনি চিকিৎসকের পরামর্শে হোম আইসোলশনে থেকেই চিকিৎসা নিচ্ছিলেন। রিপোর্ট আসার ২দিন পরে গত ১৫ জুলাই তাকে করোনার সুস্থতার ছাড়পত্র দেন আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক ডা. ফাতিমা শারমিন। ছাড়পত্র দেওয়ার ৫ দিন পরে তিনি গতকাল (মঙ্গলবার) দুপুরে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েন। চিকিৎসার জন্য বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে নেওয়ার পথে দুপুর দেড়টার দিকে লেবুখালী ফেরীঘাটে তিনি মৃত্যুবরণ করেন।

করোনা পজেটিভ রোগীকে সুস্থতার ছাড়পত্র দেওয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক ডা. ফাতিমা শারমিন বলেন, বর্তমানে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে আমাদের যে গাইডলাইন দেওয়া হয়েছে তাতে বলা আছে করোনার লক্ষণ শুরু হওয়ার ১০ দিনের মধ্যে আক্রান্তের শরীরে পরপর ৩ দিন কোনো উপসর্গ যদি পরিলক্ষিত না হয় তাহলে তাকে সুস্থতার ছাড়পত্র দেওয়া যায়।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য প্রশাসকের দায়িত্বে থাকা ডা. মো. ইমদাদুল হক চৌধুরী বলেন, গত ৯ জুলাই মো. শাহআলম তালুকদার করোনা উপসর্গ জ্বর সর্দি কাশি ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এসে নমুনা দেন। চারদিন পরে করোনা পজেটিভ রিপোর্ট হাসপাতালে এসে পৌঁছায়। এর দুই দিন পরে তাকে সুস্থতার ছাড়পত্র দেওয়া হয়েছে। আজ দুপুরে শুনলাম তিনি নাকি মারা গেছেন। যেহেতু তিনি করোনা পজেটিভ ছিলেন, ধারণা করা হচ্ছে তিনি হয়তো করোনায় মারা গেছেন।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মনিরা পারভীন বলেন, স্বাস্থ্যবিধি মেনেই করোনায় নিহত শাহআলম তালুকদারের জানাযা ও মরদেহ দাফন করা হবে।

9750cookie-checkকরোনা আক্রান্তের দু’দিন পর সুস্থতার ছাড়পত্র, ৫ দিন পর মৃত্যু

Author: Faruk

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *