আসামে বন্যা পরিস্থিতির অবনতি, ১১১ জনের মৃত্যু

আসাম রাজ্য দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ (এএসডিএমএ) সর্বশেষ তথ্যে জানিয়েছে, বন্যা পরিস্থিতির মারাত্মক অবনতি ঘটেছে ভারতের উত্তর পূর্বাঞ্চলীয় আসাম রাজ্যে। রাজ্যটিতে বন্যায় এ পর্যন্ত ১১১ জনের মৃত্যু হয়েছে। মহাপ্লাবনে প্রায় ২৫ লাখ লোক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এএসডিএমএ জানায়, সোমবার সোনাপুর জেলায় ১ জনের মৃত্যু হয়েছে, এ নিয়ে মোট মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১১১ জনে।

সরকারি হিসাবে বলা হয়, গত কয়েক সপ্তাহে বন্যার পানিতে ডুবে ৮৫ জনের মৃত্যু হয়েছে, ভূমিধসে মৃত্যু হয়েছে ২৬ জনের। সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত জেলাগুলো হলো ধেমাজি, লখিমপুর, বিশ্বনাথ, দরং, বাক্সা, নলবাড়ি, বরপেটা, চিরাং, বঙাইগাঁও, কোকড়াঝাড়, ধুবড়ি, গোয়ালপাড়া, কামরূপ, মরিগাঁও, নগাঁও, গোলাঘাট, ডিব্রুগড়, তিনসুকিয়া ও কাছাড়।

সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে গোয়ালপাড়া, এখানে ৪ লাখ ৫৯ হাজার লোক বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে, এরপরেই বরপেটা জেলায় ৩ লাখ ৩৫ হাজার লোক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। বাস্তুচ্যুত লোকদের রাজ্যজুড়ে অস্থায়ী ত্রাণ ক্যাম্পে আশ্রয় দেয়া হয়েছে।

সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত জেলাগুলো হলো ধেমাজি, লখিমপুর, বিশ্বনাথ, দরং, বাক্সা, নলবাড়ি, বরপেটা, চিরাং, বঙাইগাঁও, কোকড়াঝাড়, ধুবড়ি, গোয়ালপাড়া, কামরূপ, মরিগাঁও, নগাঁও, গোলাঘাট, ডিব্রুগড়, তিনসুকিয়া ও কাছাড়।

এদিকে আসামের মুখ্যমন্ত্রীর বরাত দিয়ে ভারতীয় এক গণমাধ্যমে জানিয়েছে, আসামের ৩৩ জেলার মধ্যে ২৪ জেলায় ৭০ লাখ মানুষ বন্যায় কবলিত হয়েছে। তারা ব্যাপক দুর্ভোগে রয়েছে। এছাড়া গবাদি পশুগুলোও চরম নাজেহাল অবস্থায় পড়েছে।

9930cookie-checkআসামে বন্যা পরিস্থিতির অবনতি, ১১১ জনের মৃত্যু

Author: Faruk

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *